সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১৪ জানুয়ারি ২০২১

প্রধান প্রকৌশলী

মোঃ আবদুস সবুর

প্রধান প্রকৌশলী

সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর

জনাব মোঃ আবদুস সবুর, ০৬ জানুয়ারি ২০২১ খ্রিস্টাব্দে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী হিসাবে যোগদান করেন। তাঁর নিজ জেলা ভোলা। তাঁর পিতার নাম মরহুম আলহাজ্ব মোঃ আবদুস সাকুর এবং মাতার নাম মরহুমা মমতাজ বেগম। তিনি ভোলা সরকারী স্কুল থেকে এস.এস.সি এবং ভোলা সরকারী কলেজ থেকে এইচ.এস.সি. পাশ করেন এবং ১৯৮৪ সালে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) থেকে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং-এ বিএসসি. ডিগ্রী অর্জন করেন। পরবর্তীতে তিনি একই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৮৯ সালে ট্রান্সপোর্টেশান ইঞ্জিনিয়ারিং-এ পোস্ট গ্র্যাজুয়েট ডিপ্লোমা অর্জন করেন।

 

জনাব সবুর ০৩ জুলাই ১৯৮৬ সালে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরে সহকারি প্রকৌশলী হিসাবে যোগদান করেন এবং বিভিন্ন কর্মস্থলে দূরদর্শিতা, নিষ্ঠা ও সুনামের সাথে দায়িত্ব পালন করেন। সহকারি প্রকৌশলী হিসাবে নিয়োগপ্রাপ্ত হয়ে তিনি ব্রীজ সার্ভে এন্ড হাইড্রলজি ডিভিশন, প্রগ্রেস ডিভিশন এবং সিলেট সড়ক সার্কেলে কর্মরত ছিলেন। পদোন্নতি প্রাপ্ত হয়ে তিনি উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী হিসাবে সড়ক উপ-বিভাগ গৌরীপুর, কুমিল্লা এবং সড়ক উপ-বিভাগ কেরানিগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ পদে কাজ করেন। অতঃপর তিনি নির্বাহী প্রকৌশলী হিসাবে ইনফরমেশন সার্ভিসেস ডিভিশন, ঢাকা; সড়ক বিভাগ সিলেট ও নারায়ণগঞ্জ এবং প্রশাসন ও সংস্থাপন, ঢাকায় সুনামের সাথে দায়িত্ব পালন করেন।

 

এছাড়াও তিনি সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের আওতায় বিভিন্ন সময়ে বাস্তবায়িত প্রকল্পের মধ্য এসআরএনডিপি, ৩ সেতু প্রকল্প এবং ঢাকা-চট্টগ্রাম ৪-লেন হাইওয়ে প্রকল্পে যথাক্রমে সহকারী প্রকল্প পরিচালক, প্রকল্প ব্যবস্থাপক ও অতিরিক্ত প্রকল্প পরিচালক হিসাবে কাজ করেন।

 

জনাব সবুর তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী হিসাবে নোয়াখালী সড়ক সার্কেলে এবং অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী হিসাবে ঢাকা জোনে দায়িত্ব পালন করেন। প্রধান প্রকৌশলী হিসাবে যোগদানের পূর্বে তিনি ওয়েস্টার্ন বাংলাদেশ ব্রিজ ইম্প্রুভমেন্ট প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

 

সরকারি কাজের অংশ হিসাবে তিনি সিঙ্গাপুর, দক্ষিণ কোরিয়া, নিউজিল্যান্ড, জার্মানি, চীন ও ভারতে বিভিন্ন প্রশিক্ষণ, সেমিনার ও কর্মশালায় অংশগ্রহণ করেন।

 

ব্যক্তিগত জীবনে জনাব সবুর এক পুত্র ও এক কন্যা সন্তানের জনক।


Share with :

Facebook Facebook